করোনার ভয়, যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি ছাড়ার হিড়িক

উত্তর আমেরিকা অফিস
১৪ অক্টোবর ২০২১, রাত ৩:২১ সময়
ছবি: রয়টার্স

গোটা দেশে গণহারে কোভিডের টিকাদান কার্যক্রম চালুর পর নিয়ন্ত্রণে এসেছিল করোনা। তবে এখন ফের বাড়তে শুরু করেছে মারণ এ ভাইরাসের ছোবল। বেশ কিছুদিন ধরেই আক্রান্ত ও মৃত্যুতে বিশ্বে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। এখন করোনা নিয়ন্ত্রণে বুস্টার ডোজ দেয়া হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতেও টিকা নিতেও অনাগ্রহী অনেক মার্কিন নাগরিক।

এমনকি টিকার বাধ্যবাধকতা এড়াতে প্রয়োজনে চাকরি ছেড়ে দিতেও রাজি আছেন কেউ কেউ। যার প্রভাব  পড়েছে শ্রমবাজারে। করোনা টিকা নেয়ার বাধ্যবাধকতা জারি হতে না হতেই চাকরি ছাড়ার হিড়িক পড়েছে যুক্তরাষ্ট্রে।

গত আগস্ট মাসে ৪৩ লাখের বেশি চাকরিজীবী চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন বলে জানিয়েছে দেশটির শ্রম বিভাগের জব ওপেনিংস অ্যান্ড লেবার টার্নওভার সার্ভে (জেওএলটিএস)।

ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়েছে, চাকরি ছাড়ার এই সংখ্যা আগের সব রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের মোট কর্মীদের মধ্যে এই সংখ্যা ২ দশমিক ৯ শতাংশ। যুক্তরাষ্ট্রে গত আগস্টে চাকরির বিজ্ঞাপন ১০ কোটি ৪ লাখে নেমে এসেছে। এর আগের মাসে এই সংখ্যা কিছুটা বেশি ছিল। গত জুলাই মাসে এই সংখ্যা ছিল ১১ কোটি ১ লাখ।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, যেসব কর্মীরা চাকরি ছেড়ে দিচ্ছেন এর বেশিরভাগই করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা থেকে। বাসস্থান এবং খাদ্য সহায়তার কাজে নিয়োজিত কর্মী যাদের সরাসরি ক্রেতাদের মুখোমুখি হতে হয়- এমন প্রায় ৮ লাখ ৯২ হাজার কর্মী আগস্টে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন।

চলতি বছররের জুলাই মাসের তুলনায় আগস্টে ১ লাখ ৫৭ হাজারের বেশি মানুষ চাকরি ছেড়েছেন। দেশের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে তাই ভ্যাকসিনের ওপরই জোর দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন দেশটির চাকরিদাতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা যেন তাদের কর্মীদের আলটিমেটাম দেয়, হয় টিকা নাও নয় চাকরি হারাও। বাইডেন বলেছেন, তিনি খুব শিগগিরই একটা আদেশ জারি করবেন যেখানে সব স্বাস্থ্যকর্মীর জন্য টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক করা হবে। দেশটির রাজ্যগুলোর প্রতিও তিনি একই আহ্বান জানিয়েছেন।

স্বাস্থ্যকর্মী ও শিক্ষকদের টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক করতে নির্দেশ জারি করার কথাও জানিয়েছেন বাইডেন।

এর আগে বাধ্যতামূলক টিকা গ্রহণের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ হয়েছে। নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের কনকর্ড এলাকায় হাসপাতালের পোশাক পরে বিক্ষোভে যোগ দেন কিছুসংখ্যক স্বাস্থ্যকর্মীও। বিক্ষোভে কিছু লোককে হাসপাতালের পোশাক পরা অবস্থায় দেখা গেছে।

হাম্পশায়ারের আপার কানেকটিকাট ভ্যালি হাসপাতালের পরিচালকরা ইতোমধ্যে তাদের কর্মীদের জন্য টিকা নেওয়া বাধ্যতামূলক করেছেন এবং বলেছেন, টিকায় মূলত রোগীরা নিরাপদ বোধ করেন।

তবে ব্যক্তিগত স্বাধীনতা ও জনস্বাস্থ্য নিয়ে চলমান বিতর্ক ঠেকাতে যুক্তরাষ্ট্র যখন হিমশিম খাচ্ছে, তখন পরিসংখ্যান বলছে, এখনো দৈনিক প্রায় দেড় হাজার আমেরিকানের প্রাণ কেড়ে নিচ্ছে ভাইরাস।

বড় ভাইয়ের প্রতিদ্বন্দ্বী ছোট ভাই, পেলেন ১৮৯ ভোট

আওয়াজবিডি ডেস্ক
৩০ নভেম্বর ২০২১, দুপুর ১২:০৪ সময়

শুধু মিলনই নয় ওই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আরেক প্রার্থী তারেকুল ইসলামেরও জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। তিনি জাসদ থেকে মশাল প্রতীকে ১৫১৪ ভোট পেয়েছেন। মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) সকালে কালাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, কালাইয়ের উদয়পুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ওয়াজেদ আলী ১৪ হাজার ৭৪৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার ছোট ভাই স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলন হোসেন মন্ডল মোটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে ১৮৯ ভোট পেয়েছেন। তিনি ওই ইউনিয়ন আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি পদে ছিলেন। নৌকা প্রতীকের বিদ্রোহী হওয়ায় গত ২৪ নভেম্বর তাকে সংগঠন থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। জাসদ মনোনীত প্রার্থী তারেকুল ইসলাম মশাল প্রতীক নিয়ে ১ হাজার ৫১৪ ভোট পেয়েছেন।

কালাই উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আবুল কালাম বলেন, মোট প্রাপ্ত ভোটের আট ভাগের এক ভাগ ভোট না পেলে ওই প্রার্থীর জামানতের টাকা ফেরত দেওয়া হয় না। ইউপি নির্বাচনে উদয়পুর ইউনিয়নে দুই প্রার্থী আট ভাগের এক ভাগের চেয়েও ভোট কম পেয়েছেন। তাই তাদের জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। তারা কেউই জামানত হিসেবে দেওয়া পাঁচ হাজার টাকা আর ফেরত পাবেন না।

তৃতীয় ধাপে গত ২৮ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ইউপি নির্বাচনে জয়পুরহাটের কালাই উপজেলোর পাঁচটি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের পাঁচজন প্রার্থীই জয়লাভ করেছেন।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস