২য় গ্লোবাল সোর্সিং প্রদর্শনীতে ২৯ দেশ থেকে থাকছে ২সহস্রাধিক ক্রেতা

বিশেষ প্রতিবেদন
২৫ নভেম্বর ২০২১, দুপুর ৪:২৬ সময়

বাংলাদেশ, ব্রাজিল, মরক্কো এবং শ্রীলঙ্কায় সেমস-গ্লোবাল কর্তৃক আয়োজিত সিরিজ প্রদর্শনীর মাধ্যমে সেমস-গ্লোবাল ইউএসএ’র আন্তর্জাতিক ‘Yarn & Fabric of exhibitions’ বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তা লাভ করেছে।

মহামারি কোভিড-19 এ বিশ্বব্যাপী সমস্ত ভ্রমণ বাতিল ও বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক টেক্সটাইল সোর্সিং প্রদর্শনী স্থগিত করা হয়, তবে কিছু প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হলেও, আন্তর্জাতিক ফ্যাব্রিক উৎপাদনকারকদের বিশাল অনুপস্থিতি দেখা যায়, ফলে বিশ্বব্যাপী ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে ক্রেতারা তাদের সোর্সিং চাহিদা পূরণ করতে এবং এর সাথে যোগাযোগের জন্য অনলাইন ভার্চুয়াল বিটুবি প্রদর্শনীর মতো নিরাপদ সংযোগ পদ্ধতিকেই বেছে নেয়।

এই বিষয়টিকে মাথায় রেখে, গো-সোর্সিং ৩৬৫ এর সাথে সেমস-গ্লোবাল আয়োজন করেছে ‘2nd The Global Yarn & Fabric Sourcing Show 2021’ -ভার্চুয়াল এডিশন । যা ২৩ থেকে ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখ অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে বিশ্বের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ টেক্সটাইল ও পোশাক উৎপাদনকারী দেশগুলোর দিকে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

অনলাইন সোর্সিং প্রদর্শনী হলো একটি আন্তর্জাতিক বিটুবি ভার্চুয়াল প্রদর্শনী এবং মিটিং করবার একটি মাধ্যম, যেখানে সারা বিশ্ব থেকে ক্রেতা এবং বিক্রেতাগণ ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে লাইভ চ্যাট, কল বা সরাসরি সংযোগ করতে পারে। অনলাইন সোর্সিং প্রদর্শনীটিতে ২৯ টির বেশি দেশের টেক্সটাইল এবং পোশাক খাত থেকে ২০০০ জনের বেশি ক্রেতাকে সংযুক্ত করা হয়েছে।

বিশ্বের মহামারী পরিস্থিতি টেক্সটাইল সোর্সিং ইন্ডাস্ট্রিকে ডিজিটাল জগতে দিকে নিয়ে গেছে । ‘2nd The Global Yarn & Fabric Sourcing Show 2021’ -ভার্চুয়াল এডিশনের পাশাপাশি ‘টেক্সটেক গ্লোবাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০২১’ এবং ‘ডাইকেম গ্লোবাল ইন্টারন্যাশনাল এক্সপো ২০২১’ ভার্চুয়াল এডিশনে ক্রেতারা ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হতে পারবে এবং উৎপাদনকারীদের সাথে মিটিং শিডিউল করাসহ লাইভ চ্যাট, কল, ভিডিও কনফারেন্স করতে পারবে। অনলাইন ভার্চুয়াল প্রদর্শনীটি বাংলাদেশ, ব্রাজিল, মিশর, ইথিওপিয়া, ঘানা, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, মরক্কো, মায়ানমার, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা এবং তুরস্কের টেক্সটাইল ও পোশাক উৎপাদনখাতের দর্শক/ক্রেতাদের দিকে লক্ষ্য রেখে প্রচার করা হয়েছে।

বিশ্বব্যাপী সমস্ত ভ্রমণ ব্যবস্থা ধীর গতিতে চলার কারনে, কোম্পানিগুলোর জন্য আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ভবিষ্যতের সাথে খাপ খাইয়ে নেওয়া ও বিশ্বব্যাপী প্রচারের লক্ষ্যে ‘2nd The Global Yarn & Fabric Sourcing Show 2021’ - ভার্চুয়াল এডিশন এর মতো এই আন্তর্জাতিক ভার্চুয়াল এডিশন বিটুবি অনলাইন সোর্সিং প্রদর্শনীর মাধ্যমে তাদের রপ্তানি বাণিজ্যকে উন্নত করার একটি উপযুক্ত সুযোগ তৈরি করেছে।

‘2nd The Global Yarn & Fabric Sourcing Show 2021’ ভার্চুয়াল এডিশন দক্ষিণ এশিয়া, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং উত্তর আফ্রিকার টেক্সটাইল/পোশাক উত্পাদন শিল্প ক্রেতাদের বিশ্বব্যাপী পোশাক যন্ত্রপাতি, সুতা, ফ্যাব্রিক, ট্রিমস, আনুষাঙ্গিক সরবরাহকারীদের সাথে কার্যত সংযুক্ত হতে সক্ষম করেছে। ডাইস্ট্যাফ এবং টেক্সটাইল রাসায়নিক উৎপাদনকারীগণ চমৎকার কোয়ালিটি ও যুক্তিসঙ্গত মূল্যে নির্ধারনের জন্য অনলাইনে মুখোমুখি হতে পেরেছে।

বিটুবি ‘2nd The Global Yarn & Fabric Sourcing Show 2021’ ভার্চুয়াল এডিশনটি আয়োজন করেছে সেমস-গ্লোবাল ইউএসএ, প্রতিষ্ঠানটি নিউইয়র্কে অবস্থিত একটি প্রফেসনাল বহুজাতিক প্রদর্শনী, কনভেনশন এবং ট্রেড শো অর্গানাইজার, যার কার্যক্রম চারটি মহাদেশ জুড়ে রয়েছে। ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠিত সেমস-গ্লোবাল প্রায় তিন দশক ধরে বাণিজ্য ও অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ ব্যবসায়িক খাতের জন্য প্রোফেশনালি বিটুবি ট্রেড শো আয়োজন করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সেমস-গ্লোবাল বিভিন্ন ব্যবসায়িক সমিতি, চেম্বার অফ কমার্স, এক্সপোর্ট প্রমোশন কাউন্সিল, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য প্রচার সংস্থা ও সরকারের সাথে অংশীদারিত্ব করেছে। সেমস-গ্লোবাল এর সফল ৪০টি ট্রেড প্রদর্শনী প্রতি বছর চারটি মহাদেশ জুড়ে বিশ্বের উচ্চ সম্ভাবনাময় এবং উন্নয়নশীল দেশে লক্ষ লক্ষ উৎপাদনকারী ও বিভিন্ন শিল্প সেক্টরকে উপকৃত করেছে এবং অনেক দেশে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও উন্নয়ন বৃদ্ধিতে অবদান রেখে চলেছে।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস

কামরুন নাহারকে ছাড়া ভিকারুননিসা চলবে না, প্রশ্ন হাইকোর্টের

আওয়াজবিডি ডেস্ক
৩০ নভেম্বর ২০২১, দুপুর ১:১২ সময়

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

শুনানির শুরুতে অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল হারুন ভূঁইয়া রাসেল বলেন, দীর্ঘদিন হয়ে গেছে আদালতের আদেশ স্বত্ত্বে ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট এখনও দাখিল করা হয়নি। উনি অধ্যক্ষ পদে থাকা অবস্থায় তদন্ত হলে তা ঠিকমত হবে না। ওনার বিপক্ষে কেউ রিপোর্ট দেবে না। তাই রিপোর্ট দাখিলের আগ পর্যন্ত কামরুন নাহারকে ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ পদে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখার আদেশ প্রার্থনা করছি। আর সরকারের প্রতি নির্দেশনা দিন দ্রুত যেন রিপোর্ট দাখিল করে।

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার এই রিটের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। বলেন, এই রিট গ্রহণযোগ্য নয়।

এ পর্যায়ে ভিকারুননিসার অধ্যক্ষের আইনজীবী মুশফিক উদ্দিন বখতিয়ার আদালতকে বলেন, মাইলর্ড রিট তো চলে না প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। এক্ষেত্রে একটা সিন্ডিকেটও আছে। কামরুন নাহার একজন বিসিএস ক্যাডার। তিনি একটি কলেজের অধ্যক্ষ পদে দায়িত্বে ছিলেন। তিনি এখানে থাকতে চান না। তাকে জোর করে ভিকারুননিসায় আনা হয়েছে।

তখন হাইকোর্ট বলেন, তিনি এমন কোনো লোক না যে তাকে ছাড়া ভিকারুননিসা চলবে না। এসব কথা কোর্টে এসে বলবেন না।

এরপর আদালত ২০২২ সালের ৩১ জানুয়ারি এই রিট মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেন।

গত ১৬ সেপ্টেম্বর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার ও অভিভাবক ফোরামের নেতা মীর সাহাবুদ্দিন টিপুর ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট আগামী ৩১ অক্টোবরের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

তদন্ত রিপোর্ট দাখিলে রাষ্ট্রপক্ষের সময় আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

গত ৯ আগস্ট শুনানিতে আদালত বলেছেন, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ কামরুন নাহার ফোনালাপে যে ভাষা ব্যবহার করেছেন, সত্যি হয়ে থাকলে অবশ্যই নিন্দনীয়। এটা অপ্রত্যাশিত। তার মুখ থেকে এ ধরনের ভাষা আশা করা যায় না।

তার আগে ৮ জুলাই ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও অভিভাবক ফোরামের নেতার ফোনালাপ ফাঁসের ঘটনায় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। রিটে অধ্যক্ষ কামরুন নাহারকে দায়িত্ব পালন থেকে বিরত রাখতে অন্তর্বর্তীকালীন নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের দুই ছাত্রীর অভিভাবক মোহাম্মদ মোরশেদ আলম রিট দায়ের করেন। রিটে শিক্ষা সচিব ও শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক ও গর্ভনিং বডির সভাপতিকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটকারীর আইনজীবী অ্যাডভোকেট আবদুল্লাহ আল হারুন ভূঁইয়া রাসেল সে সময় বলেন, ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ কামরুন নাহার অডিওতে যেসব কথা বলেছেন, তাতে তিনি ওই কলেজের অধ্যক্ষ পদে থাকার নৈতিক অবস্থান হারিয়েছেন। কারণ তিনি অধ্যক্ষ পদে বহাল থাকলে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ওপর এর প্রভাব পড়বে।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস