আমিরাতের ৫ কোটি টাকার তহবিল পেল বাংলাদেশের সোলশেয়ার

আওয়াজবিডি ডেস্ক
১৭ জানুয়ারি ২০২২, রাত ৯:১০ সময়

সোমবার আমিরাতের ভাইস প্রেসিডেন্ট শেখ মোহাম্মদ বিন রশিদ আল মাকতুম দুবাই এক্সপো-২০২০ এ জায়েদ টেকসই পুরস্কার জয়ীদের নাম ঘোষণা করেছেন। পুরস্কার জয়ী প্রত্যেক প্রতিষ্ঠান বার্ষিক ৬ লাখ ডলারের (বাংলাদেশি ৫ কোটি ১৫ লাখ ৭৯ হাজার টাকার বেশি) করে তহবিল পাবে।

ভিন্ন ভিন্ন পাঁচটি ক্যাটেগরিতে পুরস্কার বিজয়ী স্টার্ট আপের নাম ঘোষণা করা হয়েছে দুবাই এক্সপোতে। স্বাস্থ্য খাতের সংকট সমাধানে টেকসই উপায় উদ্ভাবন করে আর্জেন্টিনার ম্যামোটেস্ট, খাদ্যে ভারতের এসফরএস, সৌরশক্তিতে বাংলাদেশের সোলশেয়ার এবং পানিতে সিঙ্গাপুরের ওয়াটারোম এই তহবিল পেয়েছে।

গ্লোবাল হাই স্কুলের পঞ্চম ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ছয়টি অঞ্চলের ছয় বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। বিজয়ীরা হল, ডোমিনিকান রিপাবলিকের ইনস্টিটিউট আইবেরিয়া (আমেরিকা অঞ্চলের), স্পেনের লাইসিও ইউরোপীয় (ইউরোপ ও মধ্য-এশিয়া অঞ্চলের), ইসরায়েলের পূর্ব ভূমধ্যসাগরীয় আর্ন্তজাতিক স্কুল (মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকা), উগান্ডার সায়িদিনা আবু বকর সেকেন্ডারি স্কুল (সাব সাহারা অঞ্চলের), মালদ্বীপের হীরা স্কুল (দক্ষিণ এশিয়া) এবং জাপানের ইউডব্লিউসি আইস্যাক। প্রত্যেকটি স্কুল তাদের প্রকল্প শুরু অথবা সম্প্রসারিত করতে এক লাখ ডলার করে পাবেন।

পুরষ্কার বিজয়ীদের মধ্যে রয়েছে— সুবিধাবঞ্চিত এলাকায় বসবাসকারী নারীদের স্তন ক্যান্সার নির্ণয় ও চিকিৎসা প্রদানের উচ্চমানের উদ্ভাবনী উদ্যোগ, গ্রামীণ নারীদের ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা হতে সাহায্য করার জন্য সোলার ডিহাইড্রেশন প্রযুক্তি, পিয়ার-টু-পিয়ার এনার্জি এক্সচেঞ্জ নেটওয়ার্ক সমাধান ও জ্বালানি সংকট মোকাবিলার উদ্যোগ এবং বহনযোগ্য পানির ফিল্টারের মাধ্যমে দূষিত পানির বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তৈরি ব্যবস্থাপনা।

সোলশেয়ার বাংলাদেশ কী?

বিবিসির তথ্য অনুযায়ী, বাংলাদেশের অনেক গ্রামেই এখন সৌরবিদ্যুতের ব্যবহার হচ্ছে। আর এই সৌরবিদ্যুৎ ভাগাভাগি হচ্ছে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে। সাধারণত গ্রামের মানুষ তাদের ঘরে যে সোলার প্যানেল স্থাপন করেন, তাতে উৎপাদিত বিদ্যুতের ৩০ শতাংশ অব্যবহৃত থাকে।

অর্থাৎ সোলার প্যানেল থেকে উৎপন্ন বিদ্যুৎ ব্যাটারির স্টোরেজে জমা হয়। কিন্তু একবার সেই ব্যাটারির ধারণক্ষমতা পূর্ণ হয়ে গেলে সোলার প্যানেলের বাকি বিদ্যুৎ আর জমা হয় না। আর এই অব্যবহৃত বিদ্যুতের যেন অপচয় না হয়, এটা বিক্রি করে অন্যের চাহিদা যেন মেটানো যায়— মন ভাবনা থেকে এই সৌর বিদ্যুৎ ভাগাভাগির কাজটি শুরু করে সোলশেয়ার নামের বাংলাদেশি স্টার্ট আপ।

তাদের তৈরি সোলবক্স মিটার নামের একটি ডিভাইস দিয়েই কাজটি হচ্ছে। প্রত্যেকটি ডিভাইস একে অপরের সাথে যুক্ত হয়ে একটি মাইক্রোগ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে। আর যাদের সোলার হোম সিস্টেম নেই তারাও যুক্ত হতে পারবেন এতে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় এ পর্যন্ত দুই ডজনের বেশি মাইক্রোগ্রিড স্থাপন করে তাদের ডিভাইস ইনস্টল করেছে সোলশেয়ার। তাদের তথ্য অনুযায়ী, অন্তত তিন হাজার পরিবার এই সৌর বিদ্যুৎ ভাগাভাগির সুবিধা নিচ্ছে— যাদের বেশিরভাগই কৃষক।

সোলশেয়ারের প্রতিষ্ঠাতা ডা. গ্রোহ বলেছেন, বিদ্যুৎ দারিদ্রতা এবং কার্বন নিঃসরণ কমাতে বিশ্বের নতুন চিন্তা-ভাবনা করা দরকার। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর অত্যন্ত প্রয়োজনীয় শক্তি পরিষেবা সরবরাহ করে সোলশেয়ার।

বাংলাদেশের জ্বালানি ও পরিবহন খাতকে এক বিন্দুতে মিলিত করার লক্ষ্য নিয়েছে সোলশেয়ার। ৬০ লাখ বাসাবাড়ির সৌরবিদ্যুৎ ব্যবস্থাপনা ১৫ লাখ বৈদ্যুতিক গাড়ির সাথে সংযুক্ত করতে চায় এই স্টার্ট আপ। বর্তমানে তারা বাংলাদেশে ৬টি বৈদ্যুতিক গাড়ির চার্জিং স্টেশন নির্মাণ করেছে; যেখানে প্রায় ৪০০টি বৈদ্যুতিক থ্রি-হুইলার গাড়ির চার্জ হয়। সূত্র: খালিজ টাইমস, বিবিসি।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস

রাশিয়ার তেলে অবরোধ দিলে ইউরোপকে চড়া মূল্য দিতে হবে: পুতিন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
১৭ মে ২০২২, রাত ১০:১৩ সময়
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন —ছবি- সংগৃহীত

রুশ প্রেসিডেন্ট আরও বলেছেন, রাশিয়ার তেলে অবরোধ আরোপের আলোচনায় ইতোমধ্যে বিশ্বে তেলের মূল্য বেড়েছে।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, রাশিয়ার জ্বালানির ওপর নিষেধাজ্ঞার প্রভাব নিয়ে দেশের জ্বালানি বিষয়ক প্রধান এবং অন্যান্য কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনায় রুশ প্রেসিডেন্ট এসব কথা বলেন।

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট অভিযোগ করে বলেন, ইউক্রেনে বিশেষ অভিযানের পর পশ্চিমারা যে অবরোধ দিয়েছে তা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে।

পুতিন বলেন, কিছু দেশ রাশিয়ার জ্বালানির ওপর ব্যাপকভাবে নির্ভরশীল, তাদের জন্য রুশ তেলে অবরোধ মানা কঠিন হবে।

সূত্র: বিবিসি

অনি/আওয়াজবিডি/ইউএস