মুসলিম শাসিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম শহর মিশিগানের হ্যামট্রামক

উত্তর আমেরিকা অফিস
১৮ জানুয়ারি ২০২২, দুপুর ১২:২৭ সময়

২.২ বর্গ মাইলের এ শহরটি গত ৯৯ বছর শাসন করে আসছিলেন পোলিশ-আমেরিকানরা। খবর আরব নিউজের।

কিন্তু এখন চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন, বর্তমানে শহরটির অর্ধেকেরও বেশি বাসিন্দা আরব-মুসলিম। এ ছাড়া অসংখ্য বাংলাদেশিও আছেন এখানে। নতুন বছরে এক নতুন অধ্যায় শুরু হয়েছে শহরটিতে।

কাউন্সিলর থেকে শুরু করে এ শহরের নতুন মেয়র-সবাই মুসলিম। এক কথায় যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম মুসলিমশাসিত শহর এটি।

এ বছরের জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে সব মুসলিম সিটি কাউন্সিলের সঙ্গে শপথ গ্রহণ করেছেন নতুন মেয়র ইয়েমেন বংশোদ্ভূত আমের গালিব।

মেয়র গালিবের জন্ম ইয়েমেনে, ১৮ বছর বয়সে তিনি একাই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমান। এখন তার বয়স ৪২। চিকিৎসা ক্ষেত্রে কাজ করেন এবং ডাক্তার হওয়ার জন্য পড়াশোনা করছেন।

হ্যামট্র্যামকের আগের সেই সুসময় এখন আর নেই। শহরটা ক্ষয়ে যাচ্ছিল। অনেক কারখানা বন্ধ ছিল। অনেক দ্বিতীয় এবং তৃতীয় প্রজন্মের পোলিশ আমেরিকান গত দুই দশকে ডেট্রয়েট শহরতলিতে এবং তার বাইরে চলে গেছেন।

ইয়েমেন এবং বাংলাদেশ থেকে আসা অভিবাসীরা তাদের স্থলাভিশীক্ত হন এবং স্থানীয়দের কছে হ্যামট্রামক এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিমদের শহর।

মেয়র গালিব বলেন, আমি গর্ব বোধ করি এবং আমি একটি বড় দায়িত্ব অনুভব করছি। কারণ, অভিবাসী হিসাবে এই দেশে ব্যবস্থাপক, জনসেবা এবং রাজনৈতিক ক্ষেত্রে আমরাও সফল হতে পারি-এটা প্রমাণ করার জন্য আমাদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।

যে কোনো ইসলামাভীতিকে অগ্রাহ্য করে, গালিব নাগরিকদের সেবা করার প্রতিশ্রুতি দেন।

তিনি বলেন, সব ধর্মই পুণ্যের কথা প্রচার করে, ইসলাম আমাদের ভালো কাজ করা, মন্দ কাজ এড়িয়ে চলা, অন্যদের সম্মান করা এবং সবার সঙ্গে ভালো আচরণ করতে উৎসাহিত করে।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস

ইউরোপগামী ২০০ অভিবাসীবাহী নৌকা আটক, অধিকাংশই বাংলাদেশি

অনলাইন ডেস্ক
১৭ মে ২০২২, রাত ১১:০৯ সময়

নৌবাহিনীর মিডিয়া অফিস বলেছে, আটক করা নৌকাটি থেকে অভিবাসনপ্রত্যাশীদের উদ্ধারে প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম নিয়ে ‘জুওয়ারা’ নামের একটি জাহাজটি খুমসের উত্তরে ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে। নৌকাটি থেকে আটক অভিবাসীদের মধ্যে অধিকাংশই বাংলাদেশী। খুমস নৌ ঘাঁটিতে নামিয়ে তাদের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লিবিয়ার নৌবাহিনীর চিফ অফ স্টাফ বলেছেন যে, সমুদ্রে অবৈধ কার্যকলাপের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের কাঠামোর মধ্যেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। এটি অঙ্গীকার করে যে অভিবাসন বিরোধী কর্তৃপক্ষ তাদের দেশে তাদের নিরাপদ নির্বাসনের জন্য আশ্রয় এবং প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করার জন্য মানবিক দায়িত্ব পালন করবে

এদিকে চলতি মাসের ৯ মে থেকে ৭২ ঘণ্টার সাতটি ভিন্ন ভিন্ন অভিযানে ৪০০ জনেরও বেশি অভিবাসীকে উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে অলাভজনক সংস্থা ডক্টরস উইদাউট বর্ডারস।

সংস্থাটির একটি বিবৃতি অনুযায়ী, উদ্ধার হওয়া অভিবাসীদের মধ্যে ১৯৫ জন অপ্রাপ্তবয়স্ক ছিল, যার মধ্যে দুইজন এক বছরের কম বয়সী ছিল। উদ্ধারকারী জাহাজ জিও ব্যারেন্টস থেকে উদ্ধারকারীরা বলেছেন যে জাহাজে থাকা অনেকেই যৌন ও শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। যাদের মধ্যে চারজন লিবিয়ায় সহিংসতার ফলে ভাঙা হাড় নিয়ে নৌকায় করে ইউরোপের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিলেন।