যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারক পদে প্রথম বাংলাদেশি আমেরিকানকে মনোনয়ন

উত্তর আমেরিকা অফিস
২০ জানুয়ারি ২০২২, দুপুর ৪:৫১ সময়
নুসরাত চৌধুরী —ছবি: এসিএলইউ

মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন গতকাল বুধবার ফেডারেল জাজ হিসেবে নতুন আট বিচারককে মনোনয়ন দেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

নতুন ফেডারেল জাজ হিসেবে মনোনয়ন পাওয়া বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত মার্কিন নারীর নাম নুসরাত চৌধুরী। তিনি বর্তমানে আমেরিকান সিভিল লিবার্টিজ ইউনিয়ন (এসিএলইউ) অব ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের আইনবিষয়ক পরিচালক পদে কর্মরত।

এসিএলইউতে ২০০৮ সাল থেকে কাজ করছেন নুসরাত। তিনি নিউইয়র্কের এসিএলইউতেও কাজ করেছেন।

নিউইয়র্কের ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্টে ফেডারেল জাজ হিসেবে দায়িত্ব পালনের জন্য নুসরাতকে মনোনয়ন দিয়েছেন বাইডেন।

নুসরাতের মনোনয়ন সিনেট অনুমোদন করলে তিনি হবেন দেশটিতে ফেডারেল বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম বাংলাদেশি আমেরিকান।

একই সঙ্গে নুসরাত হবেন যুক্তরাষ্ট্রে ফেডারেল বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পাওয়া প্রথম মুসলিম নারী।

আর মুসলিম ব্যক্তি হিসেবে নুসরাত হবেন দেশটির দ্বিতীয় ফেডারেল বিচারক। প্রথম মুসলিম ব্যক্তি হিসেবে দেশটিতে ফেডারেল জাজ হয়েছেন জাহিদ কোরেশি। তিনি পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত আমেরিকান।

এক বছর আগে ক্ষমতায় আসার পর বাইডেন এখন পর্যন্ত ১৩ বারের মতো বিচারক মনোনয়ন দিলেন। সবশেষ ৮ জনকে নিয়ে তিনি মোট ৮৩ জন বিচারককে মনোনয়ন দিয়েছেন। তাঁর মনোনয়ন পাওয়া বিচারকদের মধ্যে অনেক নারী ও কৃষ্ণাঙ্গ রয়েছেন। নতুন মনোনয়ন দেওয়া আট বিচারকের মধ্যে সাতজনই নারী।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস

নিষিদ্ধঘোষিত বস্তু নিয়ে ৯ মাস নিষিদ্ধ হামজা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৭ মে ২০২২, রাত ১১:৩৯ সময়

গত মার্চে হামজার শরীরে নিষিদ্ধঘোষিত বস্তুর উপস্থিতি পাওয়ার পর অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেয় আইসিসি। আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে হামজার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদের খবর জানায় তারা। নিষেধাজ্ঞার সময়ে সব ধরনের ক্রিকেট কার্যক্রম থেকে বিরত থাকতে হবে ২৬ বছর বয়সী হামজাকে।

এ বছরের জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকার পার্লে নমুনা দিয়েছিলেন হামজা। আইসিসির টুর্নামেন্টের পাশাপাশি নিয়মিত ডোপ টেস্ট কার্যক্রমের অন্তর্গত ছিল সেটি। হামজার নমুনায় ফুরোসমাইড নামের নিষিদ্ধ বস্তু পাওয়া গেছে। ওয়ার্ল্ড অ্যান্টি ডোপিং এজেন্সির (ওয়াডা) ২০২২ সালের পঞ্চম অধ্যায়ে ফুরোসমাইডকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। আইসিসি ওয়াডার সদস্য।

আইসিসি বলেছে, হামজা তাঁর অপরাধ মেনে নিয়েছেন। সেভাবে তাঁর ত্রুটি ও অবহেলা প্রমাণিত না হলেও ৯ মাসের জন্য নিষিদ্ধ থাকবেন তিনি। এ বছরের ২২ মার্চ থেকে কার্যকর হবে তাঁর নিষেধাজ্ঞা। ফলে ২২ ডিসেম্বর ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন তিনি। আইসিসি জানায়, ১৭ জানুয়ারি থেকে ২২ মার্চ পর্যন্ত হামজার পারফরম্যান্স রেকর্ড বইয়ে থাকবে না।

হামজার নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে আইসিসির সাধারণ ব্যবস্থাপক অ্যালেক্স মার্শাল বলেছেন, ‘আইসিসি ক্রিকেটকে পরিচ্ছন্ন রাখতে বদ্ধপরিকর। ডোপিংয়ের ব্যাপারে ছাড় না দেওয়ার নীতি আমাদের। আন্তর্জাতিক সব ক্রিকেটারের প্রতি এটি বার্তা, তাদের শরীরে কী ঢুকছে সেটির দায় তাঁদেরই। নিষিদ্ধ বস্তু নেই, সেটি নিশ্চিত করেই ওষুধ গ্রহণ করতে হবে। যাতে ডোপিং বিরোধী নিয়ম ভঙ্গ না হয়।’

২০১৯ সালে অভিষেকের পর থেকে এখন পর্যন্ত ৬টি টেস্ট ও ১টি ওয়ানডে খেলেছেন হামজা। ১৭.৬৬ গড়ে ২১২ রান করেছেন, সর্বোচ্চ ইনিংস ৬২ রানের। সর্বশেষ টেস্ট খেলেছেন নিউজিল্যান্ড সফরে। বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট ও ওয়ানডে দুই দলে থাকলেও ‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখিয়ে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছিলেন। এরপরই জানা যায়, নিষিদ্ধঘোষিত বস্তু নেওয়ার অভিযোগ ছিল তাঁর বিপক্ষে।

হামজার আগে শরীরে নিষিদ্ধঘোষিত বস্তুর উপস্থিতি পাওয়ার পর নিষিদ্ধ করা হয় সাবেক জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেলরকে। দুর্নীতির দায়ে সাড়ে তিন বছরের নিষেধাজ্ঞার পাশাপাশি ডোপিং–বিরোধী ধারায় এক মাসের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয় টেলরকে।

অনি/আওয়াজবিডি/ইউএস