সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশ শেষে ফেরার পথে হামলা, দুই যুবলীগ কর্মী আহত

আওয়াজবিডি ডেস্ক
১৪ মে ২০২২, দুপুর ১১:৫৯ সময়

গতকাল শুক্রবার রাত আটটার দিকে নাটোর সদর উপজেলার একডালা বাবুর পুকুরপাড় এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। এর আগে গত বৃহস্পতিবার সকালে একই ধরনের হামলায় দুই যুবলীগ কর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। শহরে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

সদর থানা–পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গতকাল সন্ধ্যায় নাটোর স্টেশনবাজার এলাকায় জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে সন্ত্রাসবিরোধী বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে একডালা এলাকায় নিজ নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন যুবলীগ কর্মী আবুল হোসেন (৩৬) (ইউপি সদস্য) ও লিটন আলী (৩২)। রাত আটটার দিকে তারা বাবুর পুকুরপাড় এলাকায় পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা তাদের এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর জখম করেন।

রক্তাক্ত অবস্থায় তাদের প্রথমে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। হাসপাতালের ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে তারা চিকিৎসাধীন। হাসপাতাল পুলিশ ফাড়ির দায়িত্বরত পুলিশ সদস্য রবিউল ইসলাম জানান, তাদের দুজনের শরীরে অনেক কাটা জখম আছে। তবে লিটন আলীর অবস্থা বেশি সংকটাপূর্ণ।

এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নাটোর রেলগেট এলাকায় সন্ত্রাসীরা যুবলীগ কর্মী এস এম মাসুদ পারভেজ (৪৭) ও বুলবুল হোসেনকে (৪০) ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙে দেন। তারা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এই ঘটনার পর বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলা চেয়ারম্যান–সমর্থক ও সংসদ সদস্যের সমর্থকেরা শহরে পৃথক পৃথক প্রতিবাদ মিছিল করেন।

নাটোর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নাছিম আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ক্ষমতাসীন ব্যক্তিদের মধ্যে দুটি পক্ষ এসব ঘটনার জন্য একে অন্যকে দায়ী করছে। পুলিশ তদন্ত করে দোষী ব্যক্তিদের শনাক্ত করে কঠোর ব্যবস্থা নিবে।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস

মেক্সিকো-মার্কিন সীমান্ত: অভিবাসী পারাপারের দায়ে ৩০ মাসের জেল

উত্তর আমেরিকা অফিস
১৭ মে ২০২২, রাত ১১:৩৬ সময়

যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে অভিবাসী পারাপারের প্রমাণ পাওয়ার পর তাকে এ সাজা দেয়া হয়েছে।গত বছরের ১ অক্টোবর অ্যান্ড্রু রায়ান লোজিনস্কি নামের এক ব্যক্তি গাড়িতে পাঁচজনকে প্রবেশ করতে দেখেন নোগালেস পুলিশ। এরপর বর্ডার প্যাট্রোল তাকে গাড়ি থামাতে বললে তিনি তা না করে উল্টো গাড়ির গতি বাড়িয়ে দেন। এতে প্যাট্রোল তাকে ধাওয়া করা শুরু করে।

ধাওয়া করার সময় লোজিনস্কি তার গাড়িতে থাকা পাঁচজনকে বেড়িয়ে যেতে বলেন। কিন্তু সিটবেল্ট লাগানো থাকার ফলে তা যাত্রীদের পক্ষে সম্ভব হয়নি। পরে একটি স্পাইক স্ট্রিপে তার গাড়ির চাকা ফেসে যায় এবং পুলিশ তাকে আটক করে।