গোটা গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ করে প্রেম করতেন কর্মী!

আওয়াজবিডি ডেস্ক
১৪ মে ২০২২, দুপুর ২:৫৮ সময়

প্রেমের জন্য কত কিছুই না করে মানুষ। প্রেমিক-প্রেমিকা একে অপরের সান্নিধ্য পাওয়ার জন্য সাত সাগর তের নদী পাড়ি দিতেও রাজি। সেখানে পুরো গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ করে রাখা আর তেমন কঠিক কী কাজ? বিশ্বাস না হলেও সম্প্রতি ভারতের বিহার রাজ্যে প্রেমিকার সঙ্গ পাওয়ার জন্য গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম নিউজ১৮-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করার জন্য প্রতিদিন রাতে একটি নির্দিষ্ট সময়ে পুরো গ্রামের বিদ্যুৎ বন্ধ করে রাখতেন গ্রামেরই এক বিদ্যুৎমিস্ত্রি।

তারপর, গ্রামের একটি সরকারি স্কুলে দেখা করতেন দুজন। কথাবার্তা শেষ হলে নির্দিষ্ট সময় পর আবারও বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করে দিতেন ওই প্রেমিক। এভাবে লুকিয়ে দীর্ঘদিন প্রেম করলেও গ্রামবাসীদের সন্দেহ হওয়ায় ধরা পড়ে যান এই যুগল।

গ্রামবাসী জানান, একই সংযোগ পাশের গ্রামেও বিদ্যুৎ আসে। কিন্তু, প্রতিদিন তাদের গ্রামে বিদ্যুৎ চলে গেলেও অন্য গ্রামে বিদ্যুৎ সরবরাহ ঠিক থাকায় সন্দেহ হয় তাদের। পরে, এ ঘটনা নজরদারি শুরু করেন তারা। আর সমাধান করেন এই রহস্য।

তারা জানান, এক রাতে গ্রামের এক প্রান্তে বিদ্যুতের মূল সংযোগকারী একটি খুঁটিতে উঠতে দেখেন ওই মিস্ত্রিকে। একটু পর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে গ্রামের বিদ্যালয়ের দিকে হাঁটা দেন তিনি। যেখানে আগে থেকেই হাজির ছিলেন গ্রামেরই এক মেয়ে। প্রায় ঘণ্টা দুয়েক পর সেখান থেকে বের হয়ে আবারও খুঁটির কাছে যান ওই যুবক এবং ঠিক করে দেন বিদ্যুৎ সংযোগ।

জানা গেছে, এ ঘটনার পরপরই হাতেনাতে ধরা হয়েছে ওই যুগলকে।

কাস্টমস ক্লিয়ারেন্সে থাকা গম রপ্তানি করবে ভারত

অনলাইন ডেস্ক
১৮ মে ২০২২, রাত ১২:২০ সময়

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে মঙ্গলবার এ কথা বলা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন এনডিটিভি। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এ বিষয়ে একটি বিবৃতি দেয়া হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, যেসব গম কাস্টমস কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে পরীক্ষার জন্য এবং ১৩ই মের আগে বা ওইদিন তাদের কাছে নিবন্ধিত হয়েছে, সেইসব গমের শিপমেন্ট অনুমোদনের সিদ্ধান্ত হয়েছে। মিশর সরকারের এক অনুরোধের প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকার মিশরে গমের চালান পাঠাতে অনুমোদন দিয়েছে। এই চালানের গম এরই মধ্যে কান্দলা বন্দরে লোড করা হচ্ছে।

আকস্মিক গত রপ্তানি বন্ধ করে দেয় ভারত সরকার। এর ফলে বিভিন্ন বন্দরের বাইরে গমভর্তি হাজার হাজার ট্রাক অবস্থান করছে। দেশের ভিতরে দাম বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণে রাখতে গত ১৩ই মে সরকার গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করে। এ বিষয়ে একটি নোটিফিকেশন জারি করেছে ডিরেক্টরেট জেনারেল অব ফরেন ট্রেড (ডিজিএফটি)

এতে বলা হয়েছে, দেশে সার্বিক খাদ্য নিরাপত্তা রক্ষা করতে, প্রতিবেশী দেশগুলোর প্রয়োজনে সাপোর্ট দিতে এবং অন্য ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর জন্য সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই নোটিফিকেশনে আরও বলা হয়েছে, বেসরকারি ব্যবসায়ীরা ‘লেটার অব ক্রেডিটের’ মাধ্যমে আগেভাগে যেসব প্রতিশ্রুতি নিশ্চিত করেছেন, তাদের ক্ষেত্রে এইসব বিধিনিষেধ প্রযোজ্য হবে না। অন্য দেশের অনুরোধের প্রেক্ষিতেও সরকার রপ্তানি অনুমোদন দেবে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্যমতে, নিষেধাজ্ঞার নির্দেশ তিনটি প্রধান কারণে দেয়া হয়েছে। তা হলো, ভারতে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও মুদ্রাস্ফীতি মোকাবিলা করা, অন্য দেশগুলো যারা খাদ্য ঘাটতি মোকাবিলা করছে তাদেরকে সহায়তা করা এবং ভারতের একটি নির্ভরযোগ্য সরবরাহকারীর মর্যাদা রক্ষা করা।

অনি/আওয়াজবিডি/ইউএস