পি কে হালদারকে যেভাবে ফিরিয়ে আনা হবে

অনলাইন ডেস্ক
১৫ মে ২০২২, রাত ৮:৫৮ সময়

শনিবার (১৪ মে) গ্রেফতারের পর তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ভারতের ডিরেক্টরেট অব এনফোর্সমেন্ট-ইডি। গ্রেফতারের পর থেকেই ঘুরেফিরে উঠে আসছে একটাই প্রশ্ন—পি কে হালদারকে কবে ফিরিয়ে আনা হবে বাংলাদেশে?

রবিবার (১৫ মে) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘পি কে হালদার বাংলাদেশের ওয়ান্টেড ব্যক্তি। আমরা ইন্টারপোলের মাধ্যমে তাকে অনেক দিন ধরে চাচ্ছিলাম। ভারতে অ্যারেস্ট হয়েছেন তিনি। কিন্তু অফিসিয়ালি বিষয়টি আমাদের এখনও জানানো হয়নি। তাকে ফিরিয়ে আনতে আইনগতভাবে যা করা প্রয়োজন তা করবো।’

সংশ্লিষ্টরা জানান, দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) ও বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)-এর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই গত শুক্রবার ও শনিবার পশ্চিমবঙ্গে পি কে হালদার, তার দুই ভাই প্রীতিশ ও প্রাণেশ হালদারসহ অন্যতম প্রধান সহযোগী সুকুমার মৃধার বাড়িতে অভিযান চালায় ইডি।

শনিবার হালদার, প্রীতিশ, উত্তম মিত্র, স্বপন মিত্র ও সুকুমার মৃধার জামাতা সঞ্জীব হালদারকে গ্রেফতারের পর রবিবার তাদের তিন দিনের রিমান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়।

গ্রেফতার হওয়া পাঁচ জনই বাংলাদেশি। পি কে হালদার ভারতে গিয়ে শিবশঙ্কর হালদার নামে, উত্তম কুমার মিস্ত্রি- উত্তম মিত্র, স্বপন কুমার মিস্ত্রি- স্বপন মিত্র নামে ভুয়া নাগরিকত্বের কাগজপত্র তৈরি করেছিলেন বলে অভিযোগ আছে।

দুদক কর্মকর্তারা জানান, পি কে হালদারের নামে গত তিন বছরে দুদকে ৩৪টি মামলা দায়ের হয়েছে। এরমধ্যে একটি মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। তাকে দেশে ফিরিয়ে আনতে তারা ইতোমধ্যে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন।

দুদকের এক কর্মকর্তা জানান, ভারতের সঙ্গে বাংলাদেশের বন্দিবিনিময় চুক্তি রয়েছে। ২০১৩ সালে করা এই চুক্তির আলোকেই পি কে হালদারসহ তার সহযোগীদের ফিরিয়ে আনা সম্ভব হবে। তবে এতে দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের যোগাযোগ গুরুত্বপূর্ণ।

তিনি আরও জানান, যেহেতু বাংলাদেশের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে তাদের গ্রেফতার ও সম্পদ জব্দ করা হয়েছে, তাই তাদের ফিরিয়ে আনা যাবে।

বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর এক কর্মকর্তা জানান, পি কে হালদারের বিরুদ্ধে ইডি বা ভারত সরকার কী ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছে তার ওপর নির্ভর করবে তাকে কবে দেশে ফিরিয়ে আনা যাবে। যদি তার বিরুদ্ধে অবৈধ অনুপ্রবেশ ও জালিয়াতির অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়, তবে মামলা নিষ্পত্তি হওয়ার আগে তাকে ফিরিয়ে আনা কঠিন হয়ে যাবে।

দুদকের দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তা জানান, পি কে হালদারকে ফিরিয়ে আনার জন্য সরকার আন্তরিকভাবে চেষ্টা করছে। শুক্র থেকে রবিবার টানা তিন দিন বাংলাদেশে সরকারি ছুটি ও ভারতে শনি ও রবিবার ছুটি থাকায় আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও যোগাযোগ সম্ভব হয়নি। যোগাযোগ যা হয়েছে সব আনঅফিসিয়াল। সোমবার অফিস খোলার পর আনুষ্ঠানিকভাবে যোগাযোগ করা যাবে।

পি কে হালদারের মামলাগুলোর তদন্তে যুক্ত এক কর্মকর্তা জানান, ইতোমধ্যে পি কে হালদারসহ তার প্রায় ৮০ জন সহযোগীকে শনাক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এরমধ্যে ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

পি কে হালদারকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারলে সব মামলার তদন্ত দ্রুত সম্পন্ন করা যাবে বলে জানান তিনি। সেই সঙ্গে হালদারের অর্থ লোপাটে জড়িত আরও অনেকের নামও বেরিয়ে আসবে।

২০১৯ সালের শেষের দিকে পি কে হালদারের অর্থ লোপাটের বিষয়টি আলোচনায় আসে। ওই বছরের ২৩ অক্টোবর দুদকের পক্ষ থেকে তার বিদেশ গমনে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তবে এর আগেই দেশ ছেড়ে পালান তিনি।

অনি/আওয়াজবিডি/ইউএস

ছাত্রলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

আওয়াজবিডি ডেস্ক
৩ জুলাই ২০২২, রাত ১০:১৯ সময়

কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল উদ্দিনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে খুরুশকুলের ডেইলপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

২৬ বছর বয়সী ফয়সাল উদ্দিন ওই ইউনিয়নের কাউয়ারপাড়া এলাকার লাল মোহাম্মদের ছেলে। তিনি কক্সবাজার সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল করিম মাদু বলেন, ‘বিকেলে খুরুশকুল ইউনিয়নের ১ ও ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন ছিল। সম্মেলন শেষে সন্ধ্যায় সবাই ফিরছিলেন। ডেইলপাড়া এলাকার আজিজ সিকদার ও জহিরের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত ফয়সাল উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি করে পালিয়ে যায়। তাকে স্থানীয়রা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

ওই হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার আশিকুর রহমান জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। আহত দুজনকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে বলে জানান তিনি।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস