পি কে হালদার সম্পর্কে এখনো তথ্য দেয়নি ভারত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

অনলাইন ডেস্ক
১৬ মে ২০২২, রাত ১০:৩০ সময়

তবে তথ্য পাওয়ার পর তাঁকে বিচারের মুখোমুখি করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে বাংলাদেশ।

আজ সোমবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে একটি জাতীয় পরামর্শক সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এসব কথা বলেন।

আব্দুল মোমেন বলেন, ‘তাঁর (পি কে হালদার) ব্যাপারে ভারত সরকারের কাছ থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখনো কিছু পায়নি। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পেয়েছে কি না, আমি জানি না। তারা (ভারত) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে জানালে আমরা নীতিগতভাবে যা যা করার দরকার, নিয়মানুযায়ী তা করব। যাতে আমরা তাঁকে বিচারের সম্মুখীন করতে পারি।’

ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের (ইডি) হাতে গ্রেপ্তারের পর পি কে হালদার। গত শনিবার উত্তর চব্বিশ পরগনার সল্টলেকে

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ভারত সরকার প্রথম জানাবে এই লোক গ্রেপ্তার হয়েছে এবং হয়তো তাঁকে শাস্তি দেবে। সেগুলো হয়তো আমাদের বলবে, শাস্তির মেয়াদ বাংলাদেশে এসে শেষ করতে হবে। এটি আমরা অন্যান্য দেশের ক্ষেত্রেও করি। আমাদেরটাও তারা করে। আমাদের সে প্রসিডিউর আছে। এসব ক্ষেত্রে উভয় দেশের একটা নীতি আছে। সেই অনুযায়ী আমরা কাজ করছি।’

ভারতে বিচার প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার আগে পি কে হালদারকে দেশে আনা যাবে কি না, এমন এক প্রশ্নের উত্তরে আব্দুল মোমেন বলেন, ‘অনুপ চেটিয়ার প্রথমে আমাদের দেশে বিচার হয়েছে। তারপর ওকে আমরা দিয়েছি। একই প্রসিডিউর হয়তো হবে। মামলায় হয়তো তার বিচার হবে। তারপর আমাদের দেবে। আমি জানি না। আমাদের আইন মন্ত্রণালয় ভালো বলতে পারবে।’

বিএনপি নেতা সালাহ উদ্দিন আহমেদের মতো পি কে হালদারকে দেশে ফেরানোর বিষয়টি ঝুলে থাকবে কি না জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমার ধারণা ভারতের সঙ্গে আমাদের যে সোনালি অধ্যায় সম্পর্ক, তাতে অবশ্যই আমরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে যা করতে চাই, তারা আমাদের কথা শুনবে এবং সেই অনুযায়ী আমরা কাজ করব।’

অনি/আওয়াজবিডি/ইউএস

ছাত্রলীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা

আওয়াজবিডি ডেস্ক
৩ জুলাই ২০২২, রাত ১০:১৯ সময়

কক্সবাজার সদরের খুরুশকুলে ছাত্রলীগ নেতা ফয়সাল উদ্দিনকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে খুরুশকুলের ডেইলপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

২৬ বছর বয়সী ফয়সাল উদ্দিন ওই ইউনিয়নের কাউয়ারপাড়া এলাকার লাল মোহাম্মদের ছেলে। তিনি কক্সবাজার সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক মাহমুদুল করিম মাদু বলেন, ‘বিকেলে খুরুশকুল ইউনিয়নের ১ ও ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন ছিল। সম্মেলন শেষে সন্ধ্যায় সবাই ফিরছিলেন। ডেইলপাড়া এলাকার আজিজ সিকদার ও জহিরের নেতৃত্বে একদল দুর্বৃত্ত ফয়সাল উদ্দিনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে ও গুলি করে পালিয়ে যায়। তাকে স্থানীয়রা কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।’

ওই হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার আশিকুর রহমান জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। আহত দুজনকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. সেলিম উদ্দিন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে।

পুলিশ এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেছে বলে জানান তিনি।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস