কানাডায় ব্যাংকে গোলাগুলি, নিহত ২

অনলাইন ডেস্ক
২৯ জুন ২০২২, দুপুর ১০:৫০ সময়

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (২৮ জুন) ব্রিটিশ কলাম্বিয়া প্রদেশের একটি ব্যাংকে গোলাগুলি ও হতাহতের এই ঘটনা ঘটে। এদিকে একইস্থানে একটি সম্ভাব্য বিস্ফোরক ডিভাইস খুঁজে পাওয়ার পর বিস্ফোরণের আশঙ্কায় পার্শ্ববর্তী বাড়িগুলো খালি করে দেওয়া হয়। কানাডীয়ান পুলিশের বরাত দিয়ে বুধবার (২৯ জুন) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

কানাডার আইন প্রয়োগকারী সংস্থা জানিয়েছে, স্থানীয় সময় মঙ্গলবার সকাল ১১টার দিকে ভ্যাঙ্কুভার দ্বীপের সানিচ শহরের ব্যাংক অব মন্ট্রিলে পৌঁছায়। কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া প্রদেশের এই অঞ্চলটি যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন অঙ্গরাজ্যের সীমান্তের কাছে অবস্থিত। সানিচ শহরের পুলিশ তাদের ওয়েবসাইটে বলেছে, ওই এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশের উপস্থিতি রয়েছে। সন্দেহভাজনদের সঙ্গে যুক্ত একটি গাড়িতে সম্ভাব্য বিস্ফোরক ডিভাইস থাকার কারণে ঘটনাস্থলের কাছাকাছি বাড়ি এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো খালি করা হয়েছে। সানিচের পুলিশ প্রধান ডিন ডুথি এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, সন্দেহভাজনরা ভারী অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ছিল এবং প্রাথমিকভাবে জানা যাচ্ছে, তারা নিজের শরীরে বর্ম পরিধান করেছিল।

ডুথি বলেছেন, গোলাগুলির ঘটনায় আহত ছয় কর্মকর্তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে শিগগিরই ছেড়ে দেওয়া হবে কিন্তু অন্যরা খুব গুরুতর আহত হয়েছে এবং তাদের অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, একটি কুকুনকে সঙ্গে নিয়ে পুলিশ অফিসাররা হাঁটছেন এবং সেসময় গুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে। এছাড়া প্রত্যক্ষদর্শী আর কারও কাছে এই ঘটনার কোনো ভিডিও থাকলে তা পুলিশ জমা দিতে বলেছে বলে জানিয়েছে সিবিসি নিউজ।

ডিন ডুথি আরও বলেছেন, বিশৃঙ্খল, মর্মান্তিক, হিংসাত্মক এই ঘটনা সম্পর্কে আমি যা জানি তা হচ্ছে, গোলাগুলির এই এই ঘটনায় বাইরের কোনো মানুষ আহত হননি। এটি সত্যিই আশ্চর্যজনক। এদিকে কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো টুইটারে বলেছেন, সহিংসতার এই ঘটনায় তিনি ‘মর্মাহত ও দুঃখিত’। ট্রুডো বলেছেন, আজকের গোলাগুলির ঘটনায় আহত পুলিশ অফিসারদের - এবং তাদের সহকর্মীরা যারা মানুষকে নিরাপদ রাখতে বিপদের দিকে ছুটে গিয়েছিলেন - তাদের আমি আমার চিন্তায় রাখছি।

তুহিন/আওয়াজবিডি/ইউএসএ

ওয়াশিংটন পোস্টের খবর

ইউক্রেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধে রাশিয়ার ৭০-৮০ হাজার সেনা হতাহত: দাবি পেন্টাগনের

অনলাইন ডেস্ক
১০ আগস্ট ২০২২, রাত ১:৪৩ সময়

এর মধ্যে মাস ছয়েকের এই যুদ্ধে রাশিয়ার ৭০ থেকে ৮০ হাজার সেনা হতাহত হয়েছে বলে দাবি করেছে পেন্টাগন। অন্যদিকে, ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর দাবি, এ পর্যন্ত তাদের ৪২ হাজার ২০০ সেনার মৃত্যু হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দফতর পেন্টাগনের শীর্ষ কর্মকর্তা কলিন কাল গতকাল সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করেন।

তিনি বলেন, ইউক্রেন যুদ্ধে রুশ সেনাবাহিনীর হতাহতের সংখ্যা আসলে কত, তা নিয়ে ধোঁয়াশা থাকলেও অন্তত ৭০-৮০ হাজার সেনা হতাহত হয়েছেন। তার দাবি, হতাহতের সঠিক সংখ্যা কমবেশি হতে পারে। তবে অন্তত এই সংখ্যক সেনাকে হারিয়েছে রাশিয়া।

পেন্টাগনের ওই কর্তার দাবি, সেনাবাহিনীর পাশাপাশি চার কোটিরও বেশি ইউক্রেনীয় নাগরিকের বিরুদ্ধেও লড়তে হচ্ছে রাশিয়াকে। অন্যদিকে, আমেরিকাসহ বহু দেশের কাছ থেকে সামরিক সাহায্য পাচ্ছে ইউক্রেন। 

সূত্র : ওয়াশিংটন পোস্ট