পদ্মার পাড় ভেঙে নিখোঁজ বৃদ্ধ, দুই দিনেও সন্ধান মেলেনি

ঢাকা ট্রিবিউন
২৭ আগস্ট ২০২২, বিকাল ৫:১৩ সময়

রাজশাহীর বাঘায় পদ্মার পাড় ভেঙে এক বৃদ্ধ নিখোঁজ হয়েছেন। বিভিন্নস্থানে অবগত করা হলে নৌ-পুলিশ পদ্মায় তল্লাশি চালিয়ে দুই দিনেও তার সন্ধান করতে পারেনি। শুক্রবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

জানা গেছে, চকরাজাপুর ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের চৌমাদিয়া চরের মৃত আলী মাঝির ছেলে মুজা মাঝির (৬২) বাড়ি ১৫ দিন আগে পদ্মাগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। মনের দুঃখে বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে পাড়ে বসে কান্নাকাটি করছিলেন তিনি। এ সময় পদ্মার পাড় ভেঙে পড়ে নিখোঁজ হন। তারপর এলাকার লোকজন জানতে পেরে নৌকা ও জাল নিয়ে খোঁজ করতে থাকেন।

শুক্রবার সকালে নৌ-পুলিশ পদ্মায় তল্লাশি চালিয়েও তার সন্ধান করতে পারেনি। নিখোঁজের দুই দিন অতিবাহিত হলেও সন্ধান না পেয়ে নিখোঁজ মুজা মাঝির স্ত্রী মজিরন বেগম ও ছেলে ইসরাত আলী আহাজারি করতে করতে নির্বাক হয়ে পড়ছেন।

এ বিষয়ে রাজশাহীর ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার নুরন্নবী ও চারঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মনিরুল ইসলাম বলেন, “শুক্রবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নদীতে তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে অনুমান করা হচ্ছে, নিখোঁজ ব্যক্তি নদীতে পড়ে স্রোতে ভেসে গেছেন।”

চকরাজাপুর ইউনিয়নের চৌমাদিয়া চরের ওয়ার্ড মেম্বর আবদুর রহমান বলেন, “এক মাসের ব্যবধানে চৌমাদিয়া, আতারপাড়া, দিয়ারকাদিরপুর চরের এরশাদ মাঝি, শাহপরায়ন, দিলু ব্যাপারি, করিম তাঁতীসহ ৪০টি পরিবারের বাড়িঘর পদ্মাগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এছাড়া আম বাগান, বরই বাগান, পেয়ারা বাগান, শাকসবজি, আখ ক্ষেত, বিভিন্ন ফসলি জমিসহ শত শত বিঘা জমি পদ্মাগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।”

চকরাজাপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বাবলু দেওয়ান বলেন, “পদ্মায় বর্তমানে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। তার সঙ্গে ভাঙন শুরু হয়েছে। এরমধ্যে অনেকেই বাড়িঘর সরিয়ে নিচ্ছেন। চকরাজাপুর ভাঙতে ভাঙতে আজ ছোট হয়ে যাচ্ছে। পদ্মার তীর রক্ষার্থে কাজ করলে চকরাজাপুরবাসি নতুন স্বপ্নে উজ্জীবিত হবেন।”

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শারমিন আখতার বলেন, “তার সন্ধানের জন্য ফায়ার সার্ভিসকে অবগত করা হয়েছে। রবিবার পদ্মা নদীতে তারা অভিযান পরিচালনা করবেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে তার পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।”

বিবিসি’র প্রভাবশালী ১০০ নারীর তালিকায় প্রিয়াঙ্কা চোপড়াসহ ৩ ভারতীয়

আওয়াজবিডি ডেস্ক
৮ ডিসেম্বর ২০২২, রাত ১০:০৭ সময়

২০২২ সালে বিশ্বের বিভিন্ন ক্ষেত্রে ভূমিকা রাখা এবং নিজ নিজ কর্মক্ষেত্রের মাধ্যমে আলোচনায় থাকায় নারীরা জায়গা পেয়েছেন এ তালিকায়। সমাজকর্মী, সাংবাদিক, অভিনেত্রী, ক্রীড়াবিদ থেকে শুরু আরও অন্যান্য একাধিক পেশার নারীরা জায়গা করে নিয়েছেন এ তালিকায়।

২০০২ সালে বলিউডে ডেবিউ করেন প্রিয়াংকা। এখন পর্যন্ত ৬০টির বেশি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। প্রোডাকশন হাউস, হেয়ারকেয়ার ব্র্যান্ড, হোটেলসহ একাধিক ব্যবসা রয়েছে তার। শিশু অধিকার ও নারী শিক্ষার জন্য কাজ করেন। তালিকায় একমাত্র ভারতীয় অভিনেত্রী হিসেবে নাম রয়েছে প্রিয়াঙ্কার। রয়েছেন অন্য তিন ভারতীয় অ্যারোনটিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার সিরিশা বন্দলা, বুকারজয়ী লেখক গীতাঞ্জলি শ্রী এবং সমাজকর্মী স্নেহা জাওয়ালে। এর আগে টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালী নারীর তালিকাতেও ছিলেন প্রিয়াঙ্কা।

ইব্রাহিম/আওয়াজবিডি/ইউএস